পরাণ ভাই । PART- 1 Naser Kamal

পরাণ ভাই ।

PART-1

 

———————–ঃ নাসের কামাল

 

দীর্ঘদিন হলো গল্প লিখা ছেড়ে দিয়েছি । ভেবেই নিয়েছিলাম হবেনা এই সব ছায়পাশ লিখাটিকা দিয়ে । কি মনে হলো ভূতেটুতে ধরলো হয়তো । কে বলবে এতদিন যা ভেবেছিলাম ঠিক নাও হতে পারে হবে হয়তো ।

 অবশ্য এই অদ্ভূত মানুষটাকে না দেখলে হয়তো আজন্ম নতুন করে ভাবতে শিখতামনা ।

 

দেখলেই হাসি আসে এমনিতে তাঁকে । অদ্ভূত রকমের বিচিত্র চরিত্রে মানুষটাকে দেখেছি ।

সাক্ষাতেই স্নিগ্ধ হাসির পর হাত বাড়ানো কায়দা অভূত অভিভূত হয়ে যায় অনেকে তাঁর মিষ্টি ব্যবহারে ।

 

কথার ধরণ বিনয়ী নম্র অতি ভদ্রতায় নিজেকে উপস্থাপন করতে অভ্যস্ত ।

বয়স পঞ্চাশের উপর হবে হয়তো কিন্ত ধরার উপাই নেই । এখনো কলেজ পড়ুয়াদের আড্ডায় মানিয়ে চলে । শার্টের কলার ফুঁ মেরে উড়িয়ে চলতে পড়োয়া করেনা কখনো কখনো ।

 

লম্বাটে গড়ন । চুল ভাজ করা খুব স্বাভাবিক সুন্দর্যে সামাজিক চোখে সহজেই চোখে পড়ে ।

 

ধবধবে সাদা মানুষটা আজকে বিমর্ষ হয়ে উদাস নয়নে দেখছিলো প্রাচীন পূণর্ভবা নদীটাকে ।

 

তাঁর নামের ডাকে অন্যদের চেয়ে আলাদা কিছু প্রকাশ করে এই সমাজ পটে । মিষ্টি মধুরতায় ভরা একটি মায়াবী নাম পরাণ ভাই পরাণ আংকেল সবার মুখে মুখে মুখরিত ।

 

এই পরান ভাই গতকাল ভীষন কর্ম ব্যস্ত ছিলো ।

হতদরিদ্র এক অল্প বয়সী বিধবা মেয়ের বিয়েকে কেন্দ্র করে বলা যায় এক প্রকার সবাই মিলে ব্যস্তই ছিলাম ।

পাড়ায় ঘুরে বেড়িয়ে অর্থ সংগ্রহ করতে অনেক বাস্তবের মুখোমুখির সম্যক্ষিন হতে হয়েছে ।

 

কপাল পোঁড়া মেয়ে । প্রথম স্বামীর সঙ্গে ঘর ভাঙ্গার কারণ। পিতা মাতার বর্তমান অবস্থান । মেয়েটির বর্তমানের অবস্থান ইত্যাদি ইত্যাদি প্রশ্নের উত্তর শুধু মাত্র পরাণ ভাই দিতে সক্ষম হয়েছিলো পাশে থেকে উপভোগ করেছি মাত্র ।

 

অসম্ভব স্থির হাস্যজ্জল ও ভাব গম্ভীরতায় উত্তর গুলো দিয়েছিলো ভাবতেই পারিনি মেয়েটির সম্পর্কে বলতে বলতে সামাজিক অবস্থান সম্পর্কে অতি মূল্যবান কিছু বলে বসবে নিজেরাও মুগ্ধ হয়ে যেতাম তাঁর অভূত যুক্তিপূর্ণ কথার কারণে মহিত হয়ে যেত আরো সকলেই ।

 

দিনের শেষে উপার্জিত অর্থ এসে দাঁড়ালো বেশ একটা মোটাসোটা অংকের । ষাট হাজার দুই শত পঁচিশ টাকা ।

কষ্টার্জিত এই টাকার সংগ্রেহের মুহুর্তে সারাদিনের আনন্দকে ম্লান করে দিলো ছোট্ট একটি ঘটনা ।

 

তাৎক্ষনিক চোখের পলকেই ঘটে গেলো দুর্ঘটনাটি ।

মুহুর্তের মধ্যই সুন্দর সুখোময় সুস্থ স্বাভাবিক পরিবেশ কি রকম বদলে যেতে পারে দাঁড়িয়ে থেকে নির্বাক দেখলাম ।

 

এক মধ্য বয়সী লিকলিকে দেহের অধিকারী ব্যক্তি দৌড়ে ছুঁটে এসে পরাণ ভাই এর শার্টের কলার ধরে সালা কুত্তার বাচ্চা বলে চিৎকার চেচামেচি শুরু করলো ।

 

সবাই হতবাক !

Stay with us for next  PART-2

2 thoughts on “পরাণ ভাই । PART- 1 Naser Kamal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *